ইহুদিদের সাথে যুদ্ধকরবেন কে? কে? নিয়ত করুন

ইহুদিমারা

ইহুদিদের সাথে যুদ্ধ কিয়ামতের একটি আলামত। কারণ, শেষ যুগে ইহুদিরা হবে দাজ্জালের অনুসারী। আর মুসলমানরা হবে ইসা (আ) এর অনুসারী। তখন মুসলমানরা ইসা (আ) এর পক্ষ হয়ে ইহুদিদের সাথে যুদ্ধ করবে। এমনকি যে কোন ইহুদি কোন গাছ বা পাথরের পেছনে লুকিয়ে থাকলে সে গাছ বা পাথর বলবে: হে মুসলিম! হে আল্লাহর বান্দা! এই যে জনৈক ইহুদি আমরা পিছনে লুকিয়ে আছে। আসো তাকে হত্যা করো।

সাহাবী সামুরাহ বিন জুনদাব (রা) থেকে বর্ণিত:

তিনি বলেন: একদা রসুল (সা) দাজ্জালের আলোচনা করতে গিয়ে বলেন: দাজ্জাল মু’মিনদেরকে বাইতুল মাক্বাদিসে ঘেরাও করে রাখবে। তখন মু’মিনদের মাঝে এক ভারী প্রকম্পন সৃষ্টি হবে। অতঃপর আল্লাহ তা’আলা তাকে ও তার অনুসারীদেরকে ধ্বংস করে দিবেন। এমনকি যে কোন দেয়াল বা গাছ ডেকে ডেকে বলবে: হে মু’মিন! হে মুসলমান! এই যে ইহুদি। এই যে কাফির আমার পিছনে ‍লুকিয়ে আছে। আসো তাকে হত্যা করো। (মুসনাদে আহমাদ ৫/১৬, কিয়ামতের আলামত থেকে উধৃত)

সাহাবী আবু হুরায়রাহ (রা) হতে বর্ণিত:

ইহুদি হাদীস

তিনি বলেন: রসুল (সা) বলেন: কিয়ামত কায়িম হবে না যতক্ষন না মুসলমানরা ইহুদিদের সাথে যুদ্ধ করবে। তখন মুসলমানরা ইহুদিদেরকে হত্যা করবে। এমনকি যে কোন ইহুদি কোন গাছ বা পাথরের পেছনে লুকিয়ে থাকলে সে গাছ বা পাথর বলবে: হে মুসলিম! হে আল্লাহর বান্দাহ! এই যে ইহুদি আমার পিছনে লুকিয়ে আছে। আসো তাকে হত্যা করো। কিন্তু গারক্বাদ নামক গাছটি। সে তো তাদেরই গাছ। তাই সে তাদের ব্যাপারে মুসলমানদেরেকে কিছুই বলবে না। (বুখারী, হাদীস নাং-২৯২৬, মুসলিম, হাদীস নং-২৯২২, কিয়ামতের আলামত থেকে উধৃত)

সাহাবী আবু উমামাহ্ (রা) হতে বর্ণিত:

তিনি বলনে: রসুল (সা) একদা আমাদের সামনে আলোচনা করছিলেন। তার আলোচনার অধিকাংশই ছিলো দাজ্জাল সম্পর্কে। তিনি দাজ্জাল থেকে আমাদেরকে ভীতি প্রদর্শন করলেন। দাজ্জালের আবির্ভাব, ইসা (আ) এর অবতরণ এবং দাজ্জালকে হত্যা নিয়ে তিনি আলোচনা করলছিলেন। আলোচনার এক পর্যায়ে তিনি বললেন: একদা ইসা (আ) বলবেন: (বাইতুল মাক্বদিসের) দরোজা খোলো। তখন দরজা খোলা হবে। তার পেছনে থাকবে দাজ্জাল এবং দাজ্জালের সাথে থাকবে সত্তর হাজার ইহুদি। তাদের প্রত্যেকেই থাকবে তলোয়ারধারী এবং মোটা চাদর পরিহিত। দাজ্জাল যখন ইসা (আ) কে দেখবে তখনই সে চুপসে বা গলে যাবে যেমনভাবে গলে যায় পানিতে লবণ এবং সে ভাগতে শুরু করবে। তখন ইসা (আ) বলবেন: তোমার জন্য আমার পক্ষ থেকে একটি কঠিন মার রয়েছে যা তুমি কখনো এড়াতে পারবে না। অতঃপর ইসা (আ) তাকে পূর্ব দিকের লুদ্দ নামক গেইটের পাশেই হত্যা করবেন। আর তখনই ইহুদিরা পরাজিত হবে। এ দুনিয়াতে আল্লহা তাআলার যে কোন সৃষ্টির পিছনে কোন ইহুদি লুকিয়ে থাকলে আল্লাহ তাআলা সে বস্তুকে কথা বলার শক্তি দিবেন এবং বস্তটি তার সম্পর্কে মুসলমানদেরকে বলে দিবে। চাই তা পাথর,গাছ,দেয়াল কিংবা যে কোন পশুই হোক না কেন। কিন্তু গারক্বদ নামক গাছটি। সে তো তাদেরই গাছ। তাই সে তাদের ব্যাপারে মুসলমানদেরকে কিছুই বলবে না। (ইবনু মাজাহ হাদীস নং-৪০৭৭, কিয়ামতের আলামত থেকে উধৃত)

 

অপেক্ষায় রইলাম ইয়া আল্লাহ্ ইহুদি কতল করার তাওফিক দাও আমীন। 

Advertisements

এই সাইডটি ভিজিট করার সময় আপনি যাদি কোন অশ্লীল এডভাটাইজমেন্ট দেখেন তাহলে একটু হোমপেজের পাশে “এডভাটাইজমেন্ট মুক্ত ব্রাউজিং করুন” পাতাটি দেখুন।

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s