নাভির নিচে হাত বাঁধার হাদীছের ত্বাহ্বক্কীক-০১

(আমি এই পোস্টটি জ্ঞানের কথা নামক ব্লগারের পোস্ট হতে নিয়েছি। আল্লাহ তার জ্ঞানকে আরোও বৃদ্ধি করুন আমীন)

নাভির নিচে হাত বাঁধা সুন্নাহ!

حَدَّثَنَا مُسَدَّدٌ، حَدَّثَنَا عَبْدُ الْوَاحِدِ بْنُ زِيَادٍ، عَنْ عَبْدِ الرَّحْمَنِ بْنِ إِسْحَاقَ الْكُوفِيِّ، عَنْ سَيَّارٍ أَبِي الْحَكَمِ، عَنْ أَبِي وَائِلٍ، قَالَ قَالَ أَبُو هُرَيْرَةَ أَخْذُ الأَكُفِّ عَلَى الأَكُفِّ فِي الصَّلاَةِ تَحْتَ السُّرَّةِ

আবু হুরায়রা ও আলী (রা) থেকে বর্ণিত আছে যে, ছালাতে ডান হাতকে বাম হাতের উপর রেখে নাভির নিচে বাঁধা সুন্নাত। (আবু দাউদ হা/৭৫৮, ৭৫৬)

এই হাদীসের ভিত্তি রাবী আব্দুর রহমান বিন ইসহাক আল ওয়াসিতি আল কুফির উপর।

আবু দাউদ (র) এই হাদীস বর্ণনার পরে সয়ং নিজেই বলেন:

قَالَ أَبُو دَاوُدَ سَمِعْتُ أَحْمَدَ بْنَ حَنْبَلٍ يُضَعِّفُ عَبْدَ الرَّحْمَنِ بْنَ إِسْحَاقَ الْكُوفِيَّ

তথা: আমি আবুদাউদ ইমাম আহমাদকে বলতে শুনেছি তিনি এই হাদীছের রাবী আব্দুর রহমান বিন ইসহাক আল কুফীকে যঈফ বা দূর্বল বলেছেন। (আবু দাউদ হা/৭৫৮, ৭৫৬)

রাবী আব্দুর রহমান বিন ইসহাক আল কুফী সম্মন্ধ্যে রিজাল শাস্ত্রের ইমামদের মন্তব্য নিম্নরুপ:

১. আবু যুয়া’আহ রাযী (রহ) বলেছেন: তিনি শক্তিশালী নন। (আল জারাহ ওয়াত তা’দীল, ৫/২১৩)

২. আবু হাতীম রাযী (রহ) বলেছেন: তিনি হাদীছ বর্ণনার ক্ষেত্রে দূর্বল।তার হাদীছ লিখা যেতে পারে, তবে তার হাদীছ দ্বারা দলীল গ্রহণ করা যাবে না। (আল জারাহ ওয়াত তাদীল, ৫/২১৩)

৩. ইবনু খুজায়মা তাকে যঈফূল হাদীছ বলেছেন। (কিতাবুত তাওহীদ, পৃ: ২২০)

৪. ইবনে মুঈন বলেছেন: তিনি দূর্বল এবং কিছু্ই নন। (তারিখে ইবনু মুঈন, রাবি নং: ১৫৫৯, ৩০৭০)

৫. আহমাদ ইবনু হাম্বাল বলেছেন: মুনকারুল হাদীছ (কিতাবুয যুয়াফ, ইমাম বুখারী রাবি নং: ২০৩, আত তারিখুল কাবীর, ৫/২৫৯)

৬. ইমাম বাযযার বলেছেন: তার বর্ণিত হাদীছ হাফেজদের বর্ণিত হাদীছদের মত নয়। (কাশফুল আসতার, রাবি নং: ৮৫৯)

৭. ইয়াকুব ইবনে সুফিয়ান তাকে যঈফ বলেছেন। (কিতাবুল মারিফাতি ওয়াত তারিখ ৩/৫৯)

৮. উকাইলি তাকে যুয়াফা কিতাবে উল্লেখ করেছেন (কিতাবুয যুয়াফা, ২/৩২২)

৯. আল ইজলি বলেছেন, তিনি যঈফ (তারিখুল ইজলী, রাবী নং: ৯৩০)

১০. ইমাম বুখারী (রহ) তাকে দুর্বল বলে আখ্যায়িত করেছেন। (আল ইলাল, ইমাম তিরিমিযি ১/২২৭)

১১. ইমাম নাসাঈ তাকে যঈফ বলেছেন। (কিতাবুয যয়াফা, নাসাঈ, রাবি নং:৩৫৮)

১২. ইবনে সা’দ তাকে যঈফুল হাদীছ বলেছেন।(তাবাকাতে ইবনে সা’দ, ৬/৩৬১)

১৩. ইবনে হিব্বান বলেছেন: এই রাবি তাদের অন্তভূক্ত যারা হাদীছ ও সনদে উল্টাপাল্টা করে এবং প্রসিদ্ধ রাবীদের থেকে মুনকার রিওয়ায়েত এককভাবে বর্ণনা করে। এই রাবীর হাদীছ দ্বারা দলীল গ্রহণ করা জায়েয নয়। (কিতাবুল মাজরুহীন, ৬/৫৪)

১৪. ইমাম দারাকুতনী তাকে দুর্বল বলেছেন।(সুনানে দারাকুতনী ২/১২১ হা/১৯৮২)

১৫. ইমাম বায়হাকী তাকে মাতরুক বা পরিত্যাক্ত বলেছেন। (আস সুনানুল কুবরা, ২/৩২)

১৬. ইবনে জাওযী তাকে আজ যুয়াফা ওয়াল মাতরুকীন (২/৮৯, রাবী নং: ১৮৫) বইয়ে উল্লেখ করার পর বলেছেন: মুগীরা হতে নুমান এবং নুমান হতে তিনি মুনকার হাদীছ সমূহ বর্ণনা করতেন।

১৭. ইবনু জাওযী মাওযুআত কিতাবে বলেন: আব্দুর রহমান বিন ইসহাককে মিথ্যার দোষে অভিযুক্ত করা হয়েছে।

১৮. হাফেয যাহাবী বলেছেন: মুহাদ্দিছগণ তাকে যঈফ বলেছেন। (আল কাশিফ ৬/২৬৫)

১৯. ইবনে হাজার আসকালানী বলেছেন: তিনি যঈফ রাবী। (তাকরিবুত তাহযীব, রাবী নং: ৩৭৯৯)

২০. ইমাম নবাবী বলেছেন: এই হাদীছের যঈফ হওয়ার ব্যাপারে মুহাদ্দিছগণ ঐক্যমত পোষণ করেছেন। (শরহে মুসলিম, নববী, ৪/১১৫: নাসবুর রায়া, ইমাম জায়লাঈ হানাফী, ১/৩১৪)

২১. ইবনু মুলিকিন বলেন: নিশ্চই তিনি যঈফ। (আল বাদরুল মুনীর, ৪/১৭৭)

২২. ইমাম যারকানী মুয়াত্তা ইমাম মালেকের ভাষ্য গ্রন্ধে(১/৩২১) বলেন: এই হাদীছের সানাদ যঈফ।

উপরের বিষদ আলোচনা থেকে এই কথা স্পষ্ট ভাবে প্রমানিত হল যে, এই রাবী জমহুর মুহাদ্দিছিনদের নকট যঈফ বা দূর্বল। এজন্যই হাফেজ ইবুন হাজার আসকালানী (রহ) বলেন: এ্ হাদীছের সানাদ যঈফ। (দিরায়া, ১/১৬৮) এবং ইমাম নববী (রহ) বলেন যে, এই হাদীছ যঈফ হওয়ার ব্যাপারে সকলেই একমত পোষণ করেছেন।(নাসবুর রায়াহ, ১/৩১৪)

এমনকি হানাফি আলেম আল্লামা নিমভী (রহ) তার আছারুস সুনান গ্রন্থে (হা/৩৩০) এই হাদীছকে যঈফ বলেছেন।

এছাড়াও এই হাদীছের সানাদের অন্য রাবী:

১. যিয়াদ বিন যায়েদ: মাজহুল বা অপরিচিত (তাকরীবুত তাহযীব, রাবী নং: ২০৭৮)

২. নামান বিন সা’দ: ইমাম ইবনু হিব্বান ব্যাতীত অন্য কে উ শক্তিশালী বলেননি। আর তার থেকে আব্দুর রহমান একাই এই হাদীছটি বর্ণনা করেছে। এজন্য হাফেজ যাহাবী (রহ) বলেন: তার দারা দলীল গ্রহন করা যাবে না।

এই হাদীছ আমল যোগ্য নয়।

Advertisements

One thought on “নাভির নিচে হাত বাঁধার হাদীছের ত্বাহ্বক্কীক-০১

  1. পিংব্যাকঃ নাভির নিচে হাত বাঁধার হাদীছের ত্বাহ্বক্কীক-০২ | Message Of Messenger

এই সাইডটি ভিজিট করার সময় আপনি যাদি কোন অশ্লীল এডভাটাইজমেন্ট দেখেন তাহলে একটু হোমপেজের পাশে “এডভাটাইজমেন্ট মুক্ত ব্রাউজিং করুন” পাতাটি দেখুন।

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s